Back

ⓘ ইতিহাস




                                               

ইতিহাস

ইতিহাস হল মানুষের অতীত ঘটনা ও কার্যাবলীর অধ্যয়ন। বৃহৎ একটি বিষয় হওয়া সত্ত্বেও এটি কখনও মানবিক বিজ্ঞান এবং কখনও বা সামাজিক বিজ্ঞানের একটি শাখা হিসেবে আলোচিত হয়েছে। অনেকেই ইতিহাসকে মানবিক এবং সামাজিক বিজ্ঞানের মধ্যে একটি সেতুবন্ধন হিসেবে দেখেন। কারণ ইতিহাসে এই উভয়বিধ শাস্ত্র থেকেই পদ্ধতিগত সাহায্য ও বিভিন্ন উপাদান নেওয়া হয়। একটি শাস্ত্র হিসেবে ইতিহাস নিয়ে আলোচনা করতে গেলে অনেকগুলো উপবিভাগের নাম চলে আসে: দিনপঞ্জি, ইতিহাস-লিখন, কুলজি শাস্ত্র, পালিওগ্রাফি এবং ক্লায়োমেট্রিক্‌স। স্বাভাবিক প্রথা অনুসারে ইতিহাসবেত্তাগণ ইতিহাসের লিখিত উপাদানের মাধ্যমে বিভিন্ন ঐতিহাসিক প্রশ্নের উত্তর দেয়ার ...

                                               

আধুনিক ইতিহাস

আধুনিক ইতিহাস, আধুনিক সময়ের ইতিহাস বা আধুনিক যুগ বলতে বিশ্ব ইতিহাস-রচনাপদ্ধতি অনুসৃত সময়সীমায় ইউরোপের ইতিহাসের উত্তর-ধ্রুপদি যুগ বা মধ্যযুগের পরবর্তী সময়কে বোঝায়। আধুনিক ইতিহাসের উপবিভাগ নির্ণয় করা যায় নিম্নলিখিতভাবে: পরবর্তী আধুনিক যুগের শুরু প্রায় মধ্য-১৮শ শতাব্দীর দিকে; এর অন্তর্ভুক্ত উল্লেখযোগ্য ঐতিহাসিক মাইলফলক হল সাত বছরের যুদ্ধ, ফরাসি বিপ্লব, প্রথম শিল্প বিপ্লবএবং গ্রেট ডাইভারজেন্স। পৃথিবীর জনসংখ্যা ১০০ কোটিতে পৌঁছতে ১৮০৪ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত সময় লেগেছিল। কিন্তু তার মাত্র এক শতাব্দীর মধ্যেই, ১৯২৭ খ্রিষ্টাব্দে, তা ২০০ কোটিতে পৌঁছে যায়। প্রথম আধুনিক যুগ শুরু হয় প্রায় ১৬শ শত ...

                                               

ভারতের ইতিহাস

এই নিবন্ধটি ১৯৪৭ সালে ভারত বিভাগের পূর্ববর্তী ভারতীয় উপমহাদেশের ইতিহাস-সম্পর্কিত। ১৯৪৭-পরবর্তী ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের ইতিহাস জানতে হলে দেখুন ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের ইতিহাস নিবন্ধটি। এছাড়া পাকিস্তান বা বাংলাদেশ রাষ্ট্রের ইতিহাস জানতে হলে দেখুন যথাক্রমে পাকিস্তানের ইতিহাস ও বাংলাদেশের ইতিহাস। দক্ষিণ ভারত, অবিভক্ত বাংলা ও পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাস জানতে হলে দেখুন যথাক্রমে দক্ষিণ ভারতের ইতিহাস, বাংলার ইতিহাস ও পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাস। ভারতের ইতিহাস বলতে মূলত খ্রিষ্টপূর্ব তৃতীয় সহস্রাব্দ থেকে খ্রিষ্টীয় বিংশ শতাব্দীর মধ্যভাগ পর্যন্ত, ভারতীয় উপমহাদেশের প্রাচীন -মধ্যযুগীয় ও প্রাক-আধুনিক কালের ইতিহাসকেই ব ...

                                               

বৌদ্ধধর্মের ইতিহাস

বৌদ্ধধর্মের ইতিহাস খৃষ্টপূর্ব ৫ম শতাব্দী হতে বর্তমান সময় পর্যন্ত বিস্তৃত; যা পূর্বে প্রাচীন ভারতের পূর্বাঞ্চল থেকে গড়ে উঠে মগধ রাজ্যের চারদিকে প্রচারিত হয়েছিলো। বৌদ্ধ ধর্ম অস্তিত্ব মূলত সিদ্ধার্থ গৌতমের শিক্ষার উপর ভিত্তি করে। বৌদ্ধ ধর্ম আজ পালনকৃত প্রাচীন ধর্মগুলোর মধ্যে একটি। বৌদ্ধ ধর্মের সূত্রপাত ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল থেকে শুরু হয়ে মধ্য এশিয়া এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অব্দি ছড়িয়ে পরে। এক সময় এই ধর্ম পুরো এশিয়া মহাদেশের বেশির ভাগ অংশ জুড়ে প্রভাব বিস্তার করেছিল। এছাড়াও বৌদ্ধ ধর্মের ইতিহাস নানা ধরনের ভাববাদি আন্দোলনের উন্নয়ন যেমনঃ থেরবাদ, মহাযান ও বজ্রযানের মতো বৌদ্ধ ধর্মের অন্ ...

                                               

উত্তর ম্যাসেডোনিয়ার ইতিহাস

প্রাচীনযুগে, এখনকার উত্তর ম্যাসাডোনিয়ার অধিকাংশ এলাকা পাওনিয়া Paeonia রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত ছিল, যেখানে থ্রেশিয়ান Thracian অঞ্চল হতে উদ্ভূত পাওনিয়ান জাতি Paeonians বসবাস করত। এছাড়াও, এর কিছু অংশ প্রাচীন ইলিরিয়া Illyria এবং দারদানিয়া Dardania, এর অধীন ছিলো, যেখানে বিভিন্ন ইলিরিয়ান গোত্রের বসতি ছিলো। আর কিছু অংশ ছিল লেনেসিস এবং পেলাগোনিয়ার অন্তর্গত যা প্রাচীন গ্রিক মোলোসিয়ান উপজাতিদের আবাসস্থল ছিল। এই জাতিসমূহের নির্দিষ্ট করে নিজস্ব কোন প্রশাসনিক সীমানা ছিল না; তারা কখনও ম্যাসেডোনের রাজাদের অনুগত হয়ে সেখানে বাস করত এবং কখনও ছত্রভঙ্গ হয়ে সড়ে যেত। খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠ শতাব্দীর শেষের দি ...

                                               

বাংলাদেশের ইতিহাস

বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার একটি জনবহুল ও উন্নয়নশীল রাষ্ট্র। ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধে পাকিস্তান থেকে স্বাধীনতা অর্জনেপর দেশটি বিশ্ব মানচিত্রে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আবির্ভূত হয়। ভারতীয় উপমহাদেশের পূর্ব অংশে প্রাচীন ও ঐতিহাসিক অঞ্চলের প্রধান অংশের সাথে দেশটির সীমানা মিলেছে, যেখানে চার হাজারেরও বেশি বছর ধরে সভ্যতা চলছে, ক্যালকোলিথিক যুগেও। এই বাংলার ইতিহাস অনেক গৌরবের এবং ত্যাগের ইতিহাস। এলাকাটির প্রারম্ভিক ইতিহাস হল ভারতীয় সাম্রাজ্যের উত্তরাধিকার, অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব এবং হিন্দু ও বৌদ্ধের মধ্যকার দ্বন্দ্বের ইতিহাস। ত্রয়োদশ শতাব্দীর পরে যখন মুসলিম অভিযাত্রীরা, যেমন তুর্কী, ইরানীয়, ম ...

স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের ইতিহাস
                                               

স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের ইতিহাস

শেখ মুজিব সরকারের সর্বোচ্চ সময়ে বামপন্থি জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সশস্ত্র দল গণবাহিনী সরকারের বিরুদ্ধে লড়ে মার্ক্সবাদী সরকার প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চালায়। ফলশ্রুতিতে সরকার জাতীয় রক্ষীবাহিনী গঠন করে। এই বাহিনীর বিরুদ্ধে পরবর্তিতে নানা মানবতা ভাঙ্গার অভিযোগ ওঠে। ফায়ারিং স্কোয়াড দারা মৃত্যুদন্ড, জাতীয় রক্ষীবাহিনীর সদস্যদের নানাবিধ অপরাধ সত্ত্বেও অভিযুক্ত করা হয়না।

পুরা প্রস্তর যুগ
                                               

পুরা প্রস্তর যুগ

পুরা প্রস্তর যুগ বা আদিম প্রস্তর যুগ বা প্যালিওলিথিক বা প্যালিওলিথিক যুগ বলতে সেই সময়কালের ইতিহাসকে বোঝায় যখন আদিম মানুষ একদম প্রাথমিক পাথরের যন্ত্রপাতি বানাতে শুরু করেছিল। মানবজাতির প্রযুক্তিগত প্রাগৈতিহাসের প্রায় ৯৫% জুড়ে রয়েছে পুরা প্রস্তর যুগ। ২.৬ মিলিয়ন বছর আগে হোমিনিনিন যেমন অস্ত্রালোপিথেচিনদের মাঝে পাথরের যন্ত্রপাতি প্রচলনের সময় থেকে বর্তমান হতে ১০,০০০ বছর পূর্বে প্লাইস্টোসিন যুগের শেষভাগ পর্যন্ত এর বিস্তৃতি।

মধ্য প্রস্তর যুগ
                                               

মধ্য প্রস্তর যুগ

মধ্য প্রস্তর যুগ বা মেসোলিথিক হল প্রাচীন প্রস্তর যুগ বা প্যালিওলিথিক এবং নব্য প্রস্তর যুগ বা নিওলিথিক-এর মধ্যবর্তী এক যুগ। ইউরোশিয়াতে মধ্য প্রস্তর যুগের ভিন্ন ভিন্ন কালক্রম রয়েছে। উত্তর-পশ্চিম ইউরোপে এটি মূলত প্লাইস্টোসিন যুগের পরবর্তী সময় এবং কৃষিকাজের উপকরণ আবিষ্কারের পূর্বের যুগ, যার স্থায়িত্বকাল ছিল ১০,০০০ থেকে ৫,০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ। কিন্তু লেভান্তে প্রাপ্ত ২০,০০০ থেকে ৯,৫০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দের কৃষিজ উপকরণসমূহ মধ্য প্রস্তর যুগীয় হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

                                               

সতীশ চন্দ্র মিত্র

সতীশচন্দ্র মিত্র একজন বাঙালি ঐতিহাসিক। তিনি তাঁর দীর্ঘ পরিশ্রমের ফসল হিসেবে" যশোহর খুলনার ইতিহাস” নামক বইটি রচনা করেন। তিনি ১৪ই ডিসেম্বর, ১৮৭২ সালে তৎকালীন খুলনা জেলায় জন্ম গ্রহণ করেন। কর্ম জীবনে তিনি সরকারি বি.এল কলেজে অধ্যাপনা করেছেন। ১৯৩১ সালের ৭ই জুন মাত্র ৬০ বছর বয়সে তিনি মারা যান।