Back

ⓘ সালফার হেক্সাফ্লোরাইড




সালফার হেক্সাফ্লোরাইড
                                     

ⓘ সালফার হেক্সাফ্লোরাইড

টেমপ্লেট:Chembox CriticalTP

সালফার হেক্সাফ্লোরাইড একটি মানবসৃষ্ট গ্রিনহাউজ গ্যাস, তড়িৎ অন্তরক এবং স্ফুলিঙ্গ প্রশমক হিসেবে যার উল্লেখযোগ্য ব্যবহার রয়েছে। এটি একটি অজৈব, বর্ণহীন, গন্ধহীন, অদাহ্য ও অ-বিষাক্ত যৌগ। সালফার হেক্সাফ্লোরাইডের জ্যামিতিক গঠনকাঠামো অষ্টতলকীয় ধরনের; ছয়টি ফ্লোরিন অণু একটি কেন্দ্রীয় সালফার অণুর সাথে সংযুক্ত। এর অণুগুলো উচ্চযোজী প্রকৃতির।

এটি একটি অপোলার গ্যাস, অর্থাৎ পানিতে সালফার হেক্সাফ্লোরাইড কম দ্রবণীয়। তবে অপোলার জৈব দ্রাবকে এটি সহজেই দ্রবণীয়। সমুদ্রতলে সালফার হেক্সাফ্লোরাইডের ঘনত্ব প্রতি লিটারে ৬.১২ গ্রাম। আবার, মুক্ত বায়ুতে এর ঘনত্ব প্রতি লিটারে ১.২২৫ গ্রাম। তরল কম্প্রেসড গ্যাস হিসেবে এটি বাজারজাত করা হয়।

                                     

1. সংশ্লেষণ ও বিক্রিয়া

সালফার ও ফ্লোরিনের বিক্রিয়ার মাধ্যমে সালফার হেক্সাফ্লোরাইড উৎপাদন করা হয়। ১৯০১ সালে অঁরি মোইসো ও পল লেব্যু এ পদ্ধতি ব্যবহার করে যৌগটি প্রস্তুত করেন।

বিকল্প উপায়ে ব্রোমিন ব্যবহার করে সালফার টেট্রাফ্লোরাইড ও কোবাল্ট ট্রাইফ্লোরাইড হতে নিম্ন তাপমাত্রায় উদাহরণস্বরূপ- ১০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস সালফার হেক্সাফ্লোরাইড সংশ্লেষণ করা যায়:

বিক্রিয়া রসায়নে সালফার হেক্সাফ্লোরাইড নিয়ে সম্যক গবেষণা নেই বললেই চলে। এর জড়তা ধর্ম এজন্য অনেকাংশেই দায়ী। সালফার পরমাণুর আকৃতিগত প্রতিবন্ধকতা Steric Hindrance অনেকাংশেই দায়ী। স্ফুটনাঙ্কের নিচে গলিত সোডিয়ামের সাথে সালফার হেক্সাফ্লোরাইড বিক্রিয়া করে না। তবে লিথিয়ামের সঙ্গে এটি তাপোৎপাদী বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে না।

                                     

2. গ্রিনহাউজ গ্যাস

জলবায়ু পরিবর্তনের উপর কাজ করা আন্তঃসরকার গোষ্ঠীর ইন্টারগভর্নমেন্টাল প্যানেল অন ক্লাইমেট চেঞ্জ ভাষ্যমতে, সালফার হেক্সাফ্লোরাইড সবচেয়ে সুপ্ত গ্রিনহাউজ গ্যাস। একশ বছর সময়কাল বিবেচনায়, সালফার হেক্সাফ্লোরাইডের বৈশ্বিক উষ্ণায়ন সুপ্তক্ষমতা কার্বন ডাই অক্সাইড অপেক্ষা ২৩,৯০০ গুণ বেশি। ট্রপোমণ্ডল ও স্ট্রাটোমণ্ডলে সালফার হেক্সাফ্লোরাইড জড়ধর্মী আচরণ করে। এটি অত্যন্ত দীর্ঘস্থায়ী হয়। বায়ুমণ্ডলে এর গড় আয়ুষ্কাল ৮০০ থেকে ৩২০০ বছর।

প্রতি ট্রিলিয়নে কণার অংশ পার্টস পার ট্রিলিয়ন বা পিপিটি বিবেচনায় সালফার হেক্সাফ্লোরাইডের বৈশ্বিক গড় সংমিশ্রণ অনুপাতসংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০; প্রতি বছর ০.৩৫ পিপিটি করে সংমিশ্রণ অনুপাতসংখ্যার মান বাড়ছে। ১৯৮০ ও ১৯৯০ এর দশকে বিশ্বে গড়ে ৭% হারে সালফার হেক্সাফ্লোরাইডের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। ম্যাগনেসিয়াম উৎপাদনে এর ব্যবহার, বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি তৈরিসহ অন্যান্য বৈদ্যুতিন কাজে সালফার হেক্সাফ্লোরাইড ব্যবহার করা হয়। তবে পরিবেশে সালফার হেক্সাফ্লোরাইডের নির্গমন হার কার্বন ডাই অক্সাইডের নির্গমন হার অপেক্ষা কম হওয়ায় বৈশ্বিক উষ্ণায়নে এর অবদান ০.২% এরও কম। তবে সালফার হেক্সাফ্লোরাইডসহ বিভিন্ন হ্যালোজেনযুক্ত গ্যাসের পরিমাণ ২০২০ সালের দিকে ১০% এরও অধিক বৃদ্ধি পায়। তাই এগুলোর বিকল্প উদ্ভাবনের চেষ্টা চলছে।

ইউরোপীয় অঞ্চলে সালফার হেক্সাফ্লোরাইডের ব্যবহার এফ-গ্যাস নির্দেশনার অধীনে নিয়ন্ত্রিত হয়। এর ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় অনেক যন্ত্রপাতি উৎপাদন ও ব্যবহারকার্যে সালফার টেট্রাক্লোরাইড প্রয়োগ নিষিদ্ধ পরিগণিত হয়। ২০০৬ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ইউরোপীয় দেশগুলোতে উচ্চ বিভবের সুইচগিয়ার ছাড়া অন্য সব ক্ষেত্রে ট্রেসার গ্যাস হিসেবে এর ব্যবহার অননুমোদিত। ২০১৩ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয় সে দেশে অবস্থিত বিজ্ঞানাগারগুলোর উদাহরণস্বরূপ-নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের প্রিন্সটন প্লাজমা পদার্থবিজ্ঞান বিজ্ঞানাগার পরিবেশের উন্নয়ন সাধনে এবং কোথাওও কোনো রকম "লিক" হলে সেটি চিহ্নিত করে দূরীভূত করতে তিন বছর ধরে সফলভাবে সালফার হেক্সাফ্লোরাইড ব্যবহার করে। এরূপে ১৬,০০০ কিলোগ্রাম "লিক" অপসৃত হয়।