ⓘ Free online encyclopedia. Did you know? page 359




                                               

১৭৫৫ ক্যাপ এন ভূমিকম্প

১৭৫৫ সালের ক্যাপ এন ভূমিকম্প ১৮ই নভেম্বর তৎকালীন ব্রিটিশ উপনিবেশ ম্যাসাচুসেটস বে এর তীরের নিকটবর্তী সমুদ্রে সংঘটিত হয়েছিলো। রিখটার স্কেলে ৬.০ থেকে ৬.৩ মাত্রার মধ্যে হওয়া এই ভূমিকম্পটি ম্যাসাচুসেটসের ইতিহাসে হওয়া সবচেয়ে বড় ভূমিকম্প। যদিও ভূমি ...

                                               

১৮৩৩-এর সুমাত্রা ভূমিকম্প

১৮৩৩-এর সুমাত্রা ভূমিকম্প ২৫ নভেম্বর আনুমানিক ইন্দোনেশিয়ার স্থানীয় সময় ২২:০০ এ সংঘটিত একটি ভূমিকম্প, যার মাত্রা ছিল ৮.৮ থেকে ৯.৮ এর মধ্যে। ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্ট বিশাল সুনামিতে দ্বীপের দক্ষিণ-পশ্চিম উপকূল সম্পূর্ণ প্লাবিত হয়। ভূমিকম্পে মোট প্রা ...

                                               

১৯৭৯ কয়োটি হ্রদ ভূমিকম্প

১৯৭৯ কয়োটি লেক ভূমিকম্প, ১৯৭৯ সালের ৬ই আগস্ট স্থানীয় সময় ১০ঃ০৫ঃ২৪ এ ৫.৭ মুহূর্ত মাত্রায় এবং মার্কালি তীব্রতা স্কেলে ৭ মাত্রার ভুমিকম্প কয়োটি লেকে আঘাত হানে। আঘাতটির উৎপত্তিস্থল ক্যালিফোর্নিয়ার সান্তা ক্লারা কাউণ্টির কয়োটি লেকের পাশেই অবস্থ ...

                                               

১৯৮০ এজোরেস দ্বীপপুঞ্জ ভূমিকম্প

১লা জানুয়ারিতে এজোরেস স্বায়ত্বশাসিত অঞ্চলে সংগঠিত, ১৯৮০ এজোরেস দ্বীপ ভূমিকম্পে ৬১ জনের মৃত্যু ঘটে, আহত হয়েছিল চারশতাধিক এছাড়া তের্সেইরা এবং সাও জর্জ দ্বীপপুঞ্জের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ঘটেছিল। রিখটার স্কেলে ৭.২ মাত্রার ভূমিকম্পটি পিকো ও ফায়াল দ্ব ...

                                               

ভারতের ভূমিকম্প প্রবণ অঞ্চলসমূহ

ভারতীয় উপমহাদেশে ধ্বংসাত্মক ভূমিকম্পের ইতিহাস রয়েছে। ভারতে ভূমিকম্পের উচ্চ মাত্রা ও উচ্চ তীব্রতার প্রধান কারণ হলো, ভারতীয় টেকটনিক পাত প্রতি বছর প্রায় ৪৭ মিমি হারে এশিয়ার মূল ভূখণ্ডের দিকে প্রবেশ করছে। ভৌগোলিক পরিসংখ্যানে দেখা যায় যে ভারতের ...

                                               

আবলুস

আবলুস একধরনের কাষ্টল গাছ। এর কাঠের রঙ কালো। আবলুস কাঠের ঘনত্ব জলের থেকেও বেশি। তাই জলে ডুবে যায় । জলে ডুবে যায় এরকম কাঠের সংখ্যা খুব বেশি নেই । এই কাঠের গঠনবিন্যাস সূক্ষ্ম এবং মসৃন ভাবে পলিশ করা সম্ভব বলে অলঙ্কারিক কাজে এই কাঠের ব্যবহার রয়েছে। ...

                                               

ওক

ওক একজাতীয় শক্তকাঠের উপযোগী বৈশিষ্ট্য নিয়ে গড়া বুনো কুইরকাস গণের বৃক্ষ। এ গাছটি বিভিন্ন প্রজাতির রয়েছে। সমগ্র বিশ্বে তিনশতাধিক প্রজাতির ওক গাছ আছে। সকল প্রজাতির ওক গাছ থেকেই বৃহদাকারের বীজ জন্মায় যা একর্ন নামে পরিচিত। ইউরোপ এবং উত্তর আমেরিকা ...

                                               

বারাণসীর কাঠের খেলনা

বারাণসীর কাঠের খেলনা হল ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যের বারাণসী জেলার একটা ঐতিহ্যপূর্ণ হস্তশিল্পের নমুনা। একগুচ্ছ দক্ষ কারিগর চকচকে এবং রঙিন পালিশ করা খেলনা তৈরি করে থাকেন। ২০১৪ খ্রিস্টাব্দে বারাণসীর খেলনাগুলোকে এই অঞ্চলে তৈরি অন্যান্য পালিশ করা জিনি ...

                                               

মেহগনি

মেহগনি একটি বৃক্ষ জাতীয় উদ্ভিদ বিশেষ। মেহগনি বাংলাদেশের নিজস্ব গাছ না হলেও আর্থিক লাভের কারণে বর্তমানে ব্যাপকভাবে এ গাছের চারা রোপন করা হয়ে থাকে। ফলে বাংলাদেশের আনাচে-কানাচে এ গাছের আধিক্য লক্ষ্য করা যায়। পোকামাকড় দমন করতে মেহগনি গাছের বীজ থে ...

                                               

সেগুন

সেগুন হল নিরক্ষীয় ও ক্রান্তিয় অঞ্চলের এক প্রজাতির গাছ এবং এ গাছের কাঠ । এর বৈজ্ঞানিক নাম Tectona grandis । এ গাছের কাঠ বেশ শক্ত হয় এবং আসবাবপত্র বানাতে সেগুন কাঠের ব্যবহার সমাদৃত । সেগুন গাছের আদি নিবাস দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়া, বিশেষত: ভার ...

                                               

অভ্র

অভ্র, কিছু পাতযুক্ত ঘনিষ্ঠভাবে সম্পর্কিত কয়েকটি সিলিকেট খনিজের অন্তর্ভুক্ত, যাদের প্রায় নিখুঁত মূলগত ফাটল আছে। সবগুলিই মোনোক্লিনিক এবং ছদ্ম-ষড়ভুজাকার কেলাসের প্রবণতা আছে, এবং রাসায়নিক গঠন একরকম। প্রায় নিখুঁত বিভাজন, অভ্রের সর্বাধিক লক্ষণীয় ...

                                               

অ্যানহাইড্রাইট

অ্যানহাইড্রাইটের রাসায়নিক উপাদানের প্রায় ৪১.১৯ শতাংশ এবং ৫৮.৮ শতাংশ SO3 । এটিকে পানিবিহীন জিপসামও বলে। অ্যানহাইড্রাইটের স্ফটিক রম্বিক আকৃতির।

                                               

অ্যাসবেসটস

অ্যাসবেস্টস হল প্রাকৃতিকভাবে প্রাপ্ত ছয় সিলিকেট খনিজের একটি সেট যা তার সুবিধাজনক প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্যর কারণে বানিজিকভাবে ব্যবহৃত হয়। রেশম ও পশমের চারিত্রিক বৈশিষ্ঠের সঙ্গে এই খনিজের চারিত্রিক বৈশিষ্ঠের অনেক মিল দেখা যায়। অ্যাসবেস্টস আঁশের দীর্ঘ ...

                                               

আস্ফাল্ট

আস্ফাল্ট কুচকুচে কালো, অর্ধতরল পদার্থ যা অপরিশোধিত পেট্রোলিয়াম থেকে পাওয়া যায়। তবে আস্ফাল্ট প্রাকৃতিক ভাবেও পাওয়া যায়। সড়ক নির্মাণ, রানওয়ে ইত্যাদি নির্মাণকার্যে এটি ব্যবহৃত হয়। আস্ফাল্ট এ শব্দটি মূলত গ্রিক শব্দ, যার অর্থ দৃঢ় বা সুরক্ষিত। ...

                                               

খনিজ

"চিত্র:Améthystre sceptre2.jpg|thumb|অ্যামেথিস্ট:তাদেরকে খনিজ বলে। মূলত, এগুলো অজৈব পদার্থ এবং সাধারণভাবে কেলাসরূপে বিদ্যমান থাকে। সাধারণ শিলা বা পাথরের সাথে খনিজের মূল পার্থক্য হলো এদের নির্দিষ্ট রাসায়নিক গঠন রয়েছে যা সাধারণ পাথরের নেই। পৃথিবী ...

                                               

খনিজ তেল

অপরিশোধিত তেল বা খনিজ তেল মূলত হাইড্রোকার্বন ও অন্যান্য কিছু জৈব যৌগের মিশ্রণ। এদের মধ্যে কার্বন ও হাইড্রোজেন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। অপরিশোধিত তেলকে ব্যবহার উপযোগী করার জন্য এর বিভিন্ন অংশকে আংশিক পাতন পদ্ধতিতে পৃথক করা হয়।পেট্রোলিয়ামে বিদ্যমান বি ...

                                               

গারনেট

গোমেদ 3Al2Si3O12 এবং Ca32Si3O12 হচ্ছে জটিল সিলিকেট। গারনেটের স্ফটিক কিউব আকৃতির। দানাদার পূঞ্জীভূত পিণ্ড আকারে এটা পাওয়া যায়। গারনেট কণা হিসেবেও পাওয়া যেতে পারে। এর স্ফটিক বা কণা সূর্যের আলোতে চকচক করে। আবার নিষ্প্রভ স্ফটিক বা কণাও সচরাচর পাওয ...

                                               

গ্রাফাইট

গ্রাফাইট হচ্ছে অঙ্গার বা কার্বনের একটি রূপ এর স্ফটিক ষট-কৌনিক আকৃতির। এটা সাধারণত স্তরীভূত, আঁশযুক্ত, দানাদার এবং নিবিড় পিণ্ড আকারে বা মাটির পিণ্ড আকারে পাওয়া যায়। গ্রাফাইটের কঠিনতা ১.০-২.০ এবং আপেক্ষিক গুরুত্ব ১.৯-২.৩।

                                               

চুনাপাথর

বিশুদ্ধ চুনাপাথরের রাসায়নিক নাম ক্যালসিয়াম কার্বনেট। চুনাপাথর হলো অধাতব খনিজ । চুনাপাথরের কাঠিন্য ৩.০ এবং আপেক্ষিক গুরুত্ব ২.৬ থেকে ২.৮। ব্যবহার চুনাপাথর প্রধানত চুন তৈরি করতে ব্যবহৃত হয়। সিমেন্টের মূল উপাদান হচ্ছে চুনাপাথর। নির্মাণ, রাসায়নিক ...

                                               

জাহেরাইট

জাহেরাইট হল এক ধরনের খনিজ পদার্থ। এটি অ্যালুমিনিয়ামের এক ধরনের জটিল জলীয় সালফেট। এর সংকেত Al 12 26 5 20H 2 O। ১৯৭৭ সালে বাংলাদেশি ভূতত্ত্ববিদ এম. এ. জাহেরের নামানুসারে খনিজ পদার্থটিত নাম জাহেরাইট রাখা হয়েছিল। খনিজটি পানিতে দ্রবণীয়। এটির রং সা ...

                                               

ফ্রাইবের্গাইট

ফ্রাইবের্গাইট হল একধরনের সালফোসল্ট আকরিক, । রূপা, তামা, লোহা, অ্যান্টিমনি, ও আর্সেনিক ঘটিত এই আকরিকের কেলাসিত অবস্থায় সাধারণ সংকেত হল 10 2 Sb 4 S 13-x । অর্থাৎ এটি একটি সিলভার-কপার-আয়রন-সালফোঅ্যান্টিমনাইড। এটি সাধারণভাবে একটি এমন আকরিক হিসেবে ব ...

                                               

ফ্লোরাইট

নানা বর্ণের ফ্লোরাইট দেখা যায়। তবে হালকা সবুজ, হলুদ অথবা নীল রং এর ফ্লোরাইট সচরাচর পাওয়া যায়। পানিতে কিছুটা দ্রবণীয়। এর কঠিনতা ৪.০ এবং আপেক্ষিক গুরুত্ব ৩.০-৩.২।

                                               

ব্যারাইট

ব্যারাইট হচ্ছে ব্যারিয়াম আকর। ব্যারাইট শক্ত পিণ্ড আকারে পাওয়া যায়। এর কঠিনতা ৩.০-৩.৫ এবং আপেক্ষিক গুরুত্ব ৪.৩-৪.৭ । ব্যারাইটের রং সাদা, হলুদ, খয়েরি, লাল অথবা ধূসর। প্রতিক্রিয়া করে এমন শিলার, যেমন চুনাপাথর অথবা ডোলোমাইটের পুন:স্থাপিত অংশে ব্য ...

                                               

ম্যাগনেটাইট

ম্যাগনেটাইট একটি শিলা খনিজ এবং প্রধান আয়রন আকরিকগুলির মধ্যে একটি, এর রাসায়নিক সংকেত Fe3O4। এটি আয়রনের একটি অক্সাইড, ফেরিম্যাগনেটিক। এটি চুম্বকের প্রতি আকৃষ্ট হয় এবং নিজেই একটি স্থায়ী চুম্বক হওয়ার জন্য চৌম্বকীয় হতে পারে।এটি পৃথিবীতে প্রাকৃত ...

                                               

ম্যাগনেসাইট

ম্যাগনেসাইট নামটি এসেছে ম্যাগনেসিয়া থেকে। আর এই ম্যাগনেসিয়া হচ্ছে গ্রীসের একটি অঞ্চলের নাম। এর রাসায়নিক উপাদানের ৪৭.৬ শতাংশ MgO এবং ৫২.৪ শতাংশ CO2। মোটা দানাদার পিণ্ড হিসেবে ম্যাগনেসাইট পাওয়া যায় যা দেখতে অনেকটা ফুলকপির মতো। এর কঠিনতা ৪.০-৪. ...

                                               

রত্নপাথর

রত্নপাথর একটি খনিজ ক্রিস্টাল কেটে পালিশ করে অলংকার তৈরীতে ব্যবহৃত হয়। যাই হোক কিছু পাথর যেমন নীলকান্তমণি বা জৈব উপকরণ যা খনিজ নয় যেমন আম্বর, জেট ও মুক্তা ইত্যাদিকে রত্নপাথর হিসেবে প্রায়শই উল্লেখ করা হয়। অধিকাংশ রত্নপাথর কঠিন প্রকৃতির কিন্তু ক ...

                                               

লিগনাইট

লিগনাইট হচ্ছে অতি প্রাচীন কালের গাছ-পালা ও উদ্ভিদজাত দ্রব্যের পরিবর্তিত রূপ। লিগনাইটকে খয়েরি কয়লা বলা হয়। এটা পীটের চেয়ে শক্ত ও ভারি।

                                               

স্তরমোচিত গ্রানাইট

স্তরমোচিত গ্রানাইট হল এমন এক ধরনের গ্রানাইট যেটি পেঁয়াজের খোসার ন্যায় স্তরমোচন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে অতিবাহিত হয়ে আসছে। গ্রানাইট উপরিতলের দ্রুত শুকিয়ে যাওয়া স্তরগুলি স্প্যালিং প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ধীরে ধীরে শিলার পৃষ্ঠের তাপমাত্রার চক্রীয় প ...

                                               

হরিতাল

হরিতাল টি এক প্রকার বিষাক্ত খনিজ পদার্থ। সাধারণত আগ্নেয় শিলার সাথে এই পদার্থ পাওয়া যায়। এর আপেক্ষিক গুরুত্ব ৩.৪৯। এর গলানাঙ্ক ৩০০ ডিগ্রি থেকে ৩২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর রঙ সবুজাভ হলুদ, সোনালি বা বাদামি হলুদ হয়ে থাকে। প্রাচীন চীনে এই খনিজ পদার্থ ...

                                               

হীরক

হীরক বা হীরা বা হীরে হল সর্বাপেক্ষা মূল্যবান একটি রত্ন যা গহনা তৈরিতে বহুল ব্যবহৃত হয়। বর্ণহীন এ রত্নটি একটি মাত্র বিশুদ্ধ উপাদান কার্বন থেকে সৃষ্ট। অন্য ভাষায় হীরক কার্বনের একটি বিশেষ রূপ মাত্র। পৃথিবীতে প্রতি বছর প্রায় ২৬০০০ কে.জি. খনিজ হীরা ...

                                               

হ্যালাইট

হ্যালাইটের বাণিজ্যিক নাম খনিজ লবন। ইভাপোরাইট ক্রমের খনিজগুলোর মধ্যে হ্যালাইট অন্যতম। এর স্ফটিক কিউব আকৃতির। অনেক সময় অষ্টপলা এবং কঙ্কাল আকৃতির স্ফটিকও দেখা যায়।

                                               

বাঁশ

কাষ্ঠল চিরহরিৎ উদ্ভিদ বাঁশ আসলে ঘাস পরিবারের সদস্য। ঘাস পরিবারের এরা বৃহত্তম সদস্য। বাঁশ গাছ সাধারণত একত্রে গুচ্ছ হিসেবে জন্মায়। এক একটি গুচ্ছে ১০-৭০/৮০ টি বাঁশ গাছ একত্রে দেখা যায়। এসব গুচ্ছকে বাঁশ ঝাড় বলে।

                                               

এডাকাইট

এডাকাইট হচ্ছে এক ধরনের আগ্নেয় শিলা যার সংযুতি অন্তর্বর্তী থেকে ফেল্‌সিক গঠনের হয়ে থাকে এবং এদের ভূ-রাসায়নিক বৈশিষ্ট্যাবলি ম্যাগমার মতই হয়ে থাকে। শুরুতে মনে করা হত, এই শিলা আগ্নেয় বৃত্তচাপ এর নিচে অধোগত পরিবর্তিত ব্যাসল্টের আংশিক গলনের মাধ্যম ...

                                               

কোয়ার্টজাইট

কোয়ার্টজাইট একটি অস্তরীভূত রূপান্তরিত শিলা, যা আদি অবস্থায় বিশুদ্ধ স্ফটিক বা কাঁচসদৃশ বেলেপাথর রূপে বিদ্যমান থাকে। সচরাচর ওরোজেনিক বলয়ের টেকটোনিক সংকোচনজনিত কারণে সৃষ্ট উত্তাপ এবং চাপের কারণে বেলেপাথর রূপান্তরিত হয়ে কোয়ার্টজাইটে পরিণত হয়। ব ...

                                               

পাললিক শিলা

পাললিক শিলা হল এক প্রকারের শিলা যা ছোট ছোট কণা জমে বা জমা করে এবং পরবর্তীকালে পৃথিবীর পৃষ্ঠে সমুদ্রের তলে বা জলের অন্যান্য দেহের খনিজ বা জৈব কণার সিমেন্টেশন দ্বারা গঠিত হয়। পৃথিবীর ভূত্বকের মহাদেশগুলির পলল শৈল আবরণ বিস্তৃত পৃথিবীর বর্তমান স্থল প ...

                                               

রক ক্লাইম্বিং

রক ক্লাইম্বিং বা রক ক্লাইম্বিং হচ্ছে সেসকল কার্যক্রম যেখানে একজন অংশগ্রহণকারী একটি প্রাকৃতিক পর্বত বা কৃত্রিমভাবে তৈরি পর্বতে আরোহণ করে থাকেন । এক্ষেত্রে লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য হলো সফলভাবে পর্বতের চূড়ায় পৌঁছানো ।

                                               

শিলা

শিলা হচ্ছে প্রাকৃতিকভাবে গঠিত শক্ত পদার্থ কিংবা খনিজ পদার্থের সমষ্টি। শিলার অভ্যন্তরে খনিজ পদার্থ, এর রাসায়নিক গঠন এবং কিভাবে শিলাটি তৈরি হয় তার উপর ভিত্তি করে একে শ্রেণিবদ্ধ করা হয়। শিলাসমূহ প্রধানত তিনটি শ্রেণিতে বিভক্তঃ আগ্নেয় শিলা, পাললিক ...

                                               

ইটিয়োপ্লাস্ট

ইটিয়োপ্লাস্ট বা ইটায়োপ্লাস্ট হলো এক বিশেষ ধরনের ক্লোরোপ্লাস্ট, যা কখনোই সূর্যালোকের সংস্পর্শে আসে নি। সাধারণত অন্ধকারে জন্মানো সপুষ্পক উদ্ভিদে এদের পাওয়া যায়। একটি উদ্ভিদ বেশ কয়েক দিন ধরে অন্ধকারে রাখা হলে এর স্বাভাবিক ক্লোরোপ্লাস্টগুলো আসলে ...

                                               

কোয়ান্টাসোম

কোয়ান্টাসোম হলো ক্লোরোপ্লাস্টের থাইলাকয়েডের ঝিল্লিতে প্রাপ্ত এক ধরনের কণিকা, যেখানে সালোকসংশ্লেষণ সংঘটিত হয়। এরা ক্লোরোপ্লাস্টের থাইলাকয়েড চাকতির পৃষ্ঠে পরাস্ফটিকাকার বিন্যাসে সজ্জিত থাকে। এরা লিপিড ও প্রোটিন সমৃদ্ধ এবং বিভিন্ন সালোকসংশ্লেষী ...

                                               

পরিবেশগত সম্পদ ব্যবস্থাপনা

পরিবেশগত সম্পদ ব্যবস্থাপনা হলো পরিবেশের উপর মানব সমাজের মিথস্ক্রিয়া এবং প্রভাবের ব্যবস্থাপনা। এটি সেটি নয়, যেমনটি বাক্যাংশটিতে বলা হয়েছে, পরিবেশ নিজে নিজেই পরিচালিত হয়। পরিবেশগত সম্পদ ব্যবস্থাপনার লক্ষ্য ভবিষ্যত মানব প্রজন্মের জন্য বাস্তুতন্ত ...

                                               

আগ্নেয় গিরিখাত

আগ্নেয় গিরিখাত হলো আগ্নেয়গিরির ক্রিয়াকলাপের কারণে ভূমিতে সৃষ্টি হওয়া একটি গোলাকার নিচু জায়গা। এটি সাধারণত একটি বাটি আকৃতির বৈশিষ্ট্যের হয় যার মধ্যে ভেন্ট সংঘটিত হয়। আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের সময়, গলিত ম্যাগমা এবং আগ্নেয় গ্যাস ভূগর্ভস্থ ...

                                               

উপহ্রদ

লম্বাকৃৃতি উপহ্রদটি ভূমধ্যসাগর থেকে পাথুড়ে পাহাড়ি উচ্চভূমি দ্বারা পৃৃথকীকৃৃৃত৷ উপহ্রদ হলো স্থলভাগের অভ্যন্তরস্থ একপ্রকার জলাধার বা হ্রদ যা কোনো বৃহৎ জলভূমির থেকে প্রবালপ্রাচীর বা কোনো প্রাচীর দ্বীপের মাধ্যমে বিচ্ছিন্ন বা পৃথকীকৃত৷ বিভিন্নক্ষেত্ ...

                                               

তটরেখা

তট বা তটরেখা হলো মহাসাগর, সাগর বা হ্রদের মতো বিশাল জলাশয়ের প্রান্তভাগ এবং স্থলভূমির মধ্যবর্তী সীমানা। এটি হচ্ছে সমুদ্র বা হ্রদ এবং স্থলভূমির মধ্যবর্তী সীমানা। ভৌত সমুদ্রবিজ্ঞানে, একটি তীর বা তট হলো বৃহত্তর সীমানা যা ভূতাত্ত্বিকভাবে অতীতে এবং বর্ ...

                                               

প্রবাল প্রাচীর

টেমপ্লেট:বেলাশৈল প্রবালদ্বীপ যা আমরা আজ দেখতে পাই তার অধিকাংশই সৃষ্টি হয় শেষ তুষারযুগের পরে যখন বরফ গলার ফলে সমুদ্রতল উঠে আসে এবং মহাদেশীয় তাককে প্লাবিত করে। এর মানে বেশিরভাগ আধুনিক প্রবালদ্বীপ ১০,০০০ বছরের থেকে কম পুরনো. যখন সম্প্রদায়গুলি নিজ ...

                                               

গুলশান সোসাইটি জামে মসজিদ

সাততলা আধুনিক ভবনের মসজিদটি এমনভাবে নকশা করা হয়েছে যাতে পুরো ভবনটি একশিলা স্তম্ভের মত মনে হয়। এটি তৈরিতে সাদা ঢালাই কংক্রিট ব্যবহার করা হয়েছে। ভবনের চারপাশে চলমান একটি পর্দাকার অবয়বের মাধ্যমে এর অভ্যন্তরে আলো এবং বায়ুচলাচলের ব্যবস্থা করা হয় ...

                                               

উষ্ণ প্রস্রবণ

উষ্ণ প্রস্রবণ বা জল তাপীয় প্রম্ববণ অথব‌াভিূ-তাপীয় প্রম্ববণ হ‌লো ভূত্বক থে‌কে উ‌ঠে আসা ভূ-তা‌পে উত্তপ্ত ভূগর্ভস্থ পানি ব‌্যবহার ক‌রে তৈ‌রি এক ধর‌নের প্রস্রবণ। এ‌দের ম‌ধ্যে কিছু প্রস্রবণে নিরাপদে গোসল করার ম‌তো পা‌নি আ‌ছে কিন্তু অন‌্যগু‌লো‌তে নিম ...

                                               

সাঁতার-পুকুর

একটি সাতার পুকুর, সুইমিং পুল, সুইমিং গোসল, ওয়েডিং পুল, প্যাডলিং পুল বা সোজা কথায় পুল এমন একটি কাঠামো যা সাঁতার বা অন্যান্য অবসর ক্রিয়াকলাপ সক্ষম করতে জল ধরে রাখার জন্য নকশাকৃত। পুল স্থল বা উপরের জমিতে নির্মিত হতে পারে এবং সমুদ্র-রেখা এবং ক্রুজ ...

                                               

জলপথ

জলপথ হল পানি মাধ্যম ব্যবহার করে চলাচল উপযোগী একটি পথ। অস্পষ্টতা এড়ানোর জন্য শব্দগুলোর মধ্যে বিস্তৃত পার্থক্য থাকা ভালো এবং অন্যান্য ভাষাগুলোতে একটি শব্দের সমতুল্য শব্দ বা শব্দগুলোর সূক্ষ্ণ পার্থক্যের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন সময় ব্যবহৃত হয়ে বিভি ...

                                               

পুকুর

পুষ্করিণী বা পুকুর এক ধরনের স্থির পানির ক্ষুদ্র জলাশয় যা হ্রদের চেয়ে ছোট। পুকুর প্রকৃতি প্রদত্ত সৃষ্ট কিংবা মানুষ কর্তৃক খননকৃত - উভয় ধরনেরই হতে পারে। পোষা ও বন্য প্রাণীর উত্তম আবাসস্থল হিসেবে এটির ভূমিকা বিশাল ও ব্যাপক। প্রধানতঃ পুকুরের পানিত ...

                                               

পোতাশ্রয়

পোতাশ্রয় হল নদী বা সমূদ্র তীরবর্তী জলবেষ্টিত এলাকা যেখানে বড় বড় নৌকা বা জাহাজ ভীড় করে। একে অনেক সময় বন্দরের সাথে তুলনা করা হয় যেখানে জলযান হতে মালমাল কিংবা যাত্রী উঠানো ও নামানো হয়। তবে বন্দর সাধারণত এক বা একাধিক পোতাশ্রয় নিয়ে গঠিত হয়ে ...