ⓘ Free online encyclopedia. Did you know? page 120




                                               

প্রথম উসমান

উসমান গাজি ; ছিলেন উসমানীয় তুর্কিদের নেতা এবং উসমানীয় রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা। উসমানের সময় উসমানীয়দের রাজ্য আকারে ছোট ছিল এবং পরবর্তীতে তা বিশাল সাম্রাজ্যে পরিণত হয়। ১৯২২ সালে সালতানাতের বিলুপ্তির পূর্ব পর্যন্ত সাম্রাজ্য টিকে ছিল। ১২৯৯ সালের ১৭ ...

                                               

এলদিগুয

শাআমস আল-দিন ইলদেনিয, এলদিগুয অথবা শামসেদ্দিন এলদেনিয সেলজুক্ব সম্রাজ্যের একজন আতাবেগ ছিলেন পাশাপাশি এলদিগুযিদস রাজ বংশের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন, যা ককেসিয়ান আলবেনিয়া, ইরানি আজারবাইজান এবং বেশিরভাগ উত্তর-পশ্চিমা পার্সিয়ানদের ১২তম শতকের শেষ অর্ধেক থ ...

                                               

প্রথম ওরহান

উসমানুগলু ওরহান গাজি ছিলেন তৎকালে উসমানীয় বেয়লিক নামে পরিচিত উদীয়মান উসমানীয় সাম্রাজ্যের দ্বিতীয় বে। তিনি ১২৮১ সালে সোগুতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি প্রথম উসমান ও তার স্ত্রী মালহুন খাতুনের পুত্র। শাসনের শুরুর দিকে ওরহান উত্তরপশ্চিম আনাতোলিয়া জয় ...

                                               

নুরউদ্দিন জেনগি

নূরউদ্দিন আবুল কাসিম মাহমুদ ইবনে ইমাদউদ্দিন জেনগি ছিলেন তুর্কি বংশোদ্ভূত জেনগি রাজবংশীয় শাসক। ১১৪৬ থেকে ১১৭৪ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত তিনি সেলজুক সাম্রাজ্যের সিরিয়া প্রদেশ শাসন করেছেন। তিনি ১১৪৬ থেকে ১১৭৪ সাল পর্যন্ত রাজত্ব করেছিলেন। তাঁকে দ্বিতীয় ...

                                               

প্রথম বায়েজীদ

প্রথম বায়েজীদ, বজ্রপাত বা বজ্রকঠিন। ") ছিলেন উসমানীয় সুলতান। তিনি ১৩৮৯ থেকে ১৪০২ সাল পর্যন্ত শাসন করেছেন। তিনি সুলতান প্রথম মুরাদ ও গুলচিচেক খাতুনের পুত্র। তিনি একটি সুবিশাল সেনাবাহিনী গড়ে তোলেন। তিনি কনস্টান্টিনোপলও আক্রমণ করেছিলেন তবে তাতে ব ...

                                               

মাহমুদ গজনভি

ইয়ামিনউদ্দৌলা আবুল কাসিম মাহমুদ ইবনে সবুক্তগিন সাধারণভাবে মাহমুদ গজনভি, সুলতান মাহমুদ ও মাহমুদে জাবুলি বলে পরিচিত, ছিলেন গজনভি সাম্রাজ্যের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শাসক। ৯৯৭ থেকে ১০৩০ সালে তার মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি পূর্ব ইরানিয় ভূমি এবং ভারত উপমহ ...

                                               

দ্বিতীয় মুরাদ

দ্বিতীয় মুরাদ ছিলেন উসমানীয় সুলতান। তিনি ১৪২১ থেকে ১৪৪৪ সাল এবং ১৪৪৬ থেকে ১৪৫১ সাল পর্যন্ত রাজত্ব করেছেন। মধ্যবর্তী দুই বছর তার ছেলে দ্বিতীয় মুহাম্মদ সিংহাসনে ছিলেন। দ্বিতীয় মুরাদ তার শাসনকালে বলকান এবং তুর্কি বেয়লিকগুলোর সামন্ত নেতাদের বিরু ...

                                               

প্রথম মুরাদ

প্রথম মুরাদ ছিলেন উসমানীয় সুলতান। তিনি ১৩৬২ থেকে ১৩৮৯ সাল পর্যন্ত শাসন করেছেন। তিনি পূর্ববর্তী শাসক প্রথম ওরহানের পুত্র। প্রথম মুরাদ এড্রিনোপল জয় করেন। তিনি এর নাম রাখেন এদির্ন‌। ১৩৬৩ সালে তিনি এই শহরে উসমানীয় সালতানাতের নতুন রাজধানী স্থাপন কর ...

                                               

প্রথম মুহাম্মদ (উসমানীয় সুলতান)

প্রথম মুহাম্মদ চেলেবি ছিলেন উসমানীয় সুলতান। ১৪১৩ থেকে ১৪২১ সাল পর্যন্ত তিনি রাজত্ব করেছেন। তিনি সুলতান প্রথম বায়েজীদ ও তার স্ত্রী দাওলাত খাতুনের পুত্র। তার শাসনামল উসমানীয় গৃহযুদ্ধের কারণে বৈশিষ্ট্যপূর্ণ। এই গৃহযুদ্ধের ফলে সালতানাত বিভক্ত হয়ে ...

                                               

শাহজাদা মুস্তাফা

শাহজাদা মুস্তাফা ছিলেন উসমানীয় সাম্রাজ্যের শাহজাদা এবং সুলতান সুলাইমান ও মাহিদেভ্রান সুলতান এর একমাত্র সন্তান। তিনি ১৫৩৩ থেকে ১৫৪৪ সাল পর্যন্ত মানিসার, ১৫৪৪ থেকে ১৫৪৯ সাল পর্যন্ত আমাসিয়ার এবং ১৫৪৯ থেকে ১৫৫৩ অবধি কোনিয়ার রাজ্যপাল ছিলেন। তিনি বয ...

                                               

প্রথম সুলাইমান

প্রথম সুলাইমান ছিলেন উসমানীয় সাম্রাজ্যের দশম এবং সবচেয়ে দীর্ঘকালব্যাপী শাসনরত সুলতান, যিনি ১৫২০ সাল থেকে ১৫৬৬ সালে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত উসমানীয় সাম্রাজ্য শাসন করেন। পাশ্চাত্যে তিনি মহৎ সুলাইমান হিসেবেও পরিচিত। তিনি পুর্নবারের জন্য সম্পূর্ণভাবে উ ...

                                               

প্রথম সেলিম

প্রথম সেলিম ছিলেন প্রথম উসমানীয় খলিফা এবং নবম উসমানীয় সুলতান। ১৫১২ থেকে ১৫২০ সাল পর্যন্ত উসমানীয় সুলতান ছিলেন। সাম্রাজ্যের ব্যাপক বিস্তৃতির জন্য তার শাসনামল পরিচিত।১৫১৪ সালে মুসলিম সাম্রাজ্য শিয়া ফেতনা থেকে মুক্ত করার জন্য শিয়া সাফাভি ইসমাইল ...

                                               

ইরানের জাতিগোষ্ঠী

ইরানের জনসংখ্যার অধিকাংশ লোকই ইরানীয় । ইরানের সর্ববৃহৎ জাতিগোষ্ঠী হলো পারসিক এবং কুর্দি, এছাড়া গিলাকি জাতি, মাজান্দারানি জাতি, লুর জাতি, বেলুচি জাতি, তুর্কমেন জাতি, আজেরি জাতি, তালিশ জাতি এবং ট্যাট জাতিসহ অনেক জাতিগোষ্ঠীন সমন্বয়ে রয়েছে। তুর্ক ...

                                               

লুর আদিবাসী

লুর আদিবাসী ইরানের কয়েকটি নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠীর মধ্যে অন্যতম। ইরানের দক্ষিণ-পশ্চিম এলাকায় লুরিস্তান প্রদেশের পাহাড়ী এলাকায় এদের বসবাস। এরা তিন সহস্রাধিক বৎসর প্রাচীন একটি জনগোষ্ঠী যারা কিলিম নামীয় শতরঞ্চি বয়নের জন্য বহুকাল যাবৎ খ্যাত। লু্র জা ...

                                               

হাজারা

হাজারা মধ্য আফগানিস্তানের হাজারাজাত পার্বত্য অঞ্চলের একটি জাতিগত গোষ্ঠী। এই জাতিগোষ্ঠীর মাতৃভাষা হাজারাগি। এটি দারি ভাষার একটি প্রকারভেদ, যা আফগানিস্তানের দুটি সরকারি ভাষার অন্যতম। হাজারা জনগোষ্ঠী আফগানিস্তানের তৃতীয় বৃহত্তম জাতিগত গোষ্ঠী। এছাড় ...

                                               

ইরোকয়

ইরোকয়, যা হয়ডেইনেসসেইনি নামেও পরিচিত। হয়ডেইনেসসেইনি-এর বাংলা করলে দাড়ায় "লংহাউজের মানুষেরা" বা "People of the Longhouse"; যা দ্বারা বোঝানো হয় উত্তর আমেরিকার দেশীয় জনগোষ্ঠীদেরকে। ১৬ শতক বা তারও পূর্বে ইরোকয়রা ইরোকয় লীগ বা শক্তি ও শান্তির ...

                                               

কানাডীয় বাংলাদেশী

বাংলাদেশী বংশদ্ভোত কানাডীয় নাগরিকদের বর্তমান উপাত্ত পাওয়া না গেলেও কানাডার পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০১১ মোতাবেক সেদেশে ৩৪,০০০ বাংলাদেশী বংশদ্ভোত কানাডীয় বসবাস করছে। যদিও কিছু সূত্রে কানাডায় বাংলাদেশী বংশদ্ভোতদের সংখ্যা আরো কম দেখানো হয়। ২০১৬ সাল ...

                                               

ফরাসি কানাডীয়

ফরাসি কানাডীয় একটি ফরাসি জাতিগোষ্ঠী যারা মূলত কানাডার নিউ ফ্রান্স অঞ্চলের বংশদ্ভূত। ১৭ শতকের শুরুর দিকে আমেরিকায় ফরাসি উপনিবেশের শুরুতে এই জনগোষ্ঠীর উৎপত্তি। এই জনগোষ্ঠী কানাডার সর্ববৃহৎ ফরাসিভাষী জনগোষ্ঠী এবং তাদের সেই সকল কানাডীয় বলেও অভিহিত ...

                                               

উল্‌ম গির্জা

উল্‌ম গির্জা বেলেন-উল্টেমেগ্গ রাজ্য উলম শহরে অবস্থিত একটি লুথারান গির্জা। বার্সেলোনা স্পেনের সাগরদা ফ্যামিলিয়া শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত এটিই বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা স্থাপন ছিলো এবং বিংশ শতাব্দীর পূর্বে নির্মিত ৫ম তম লম্বা কাঠামো যার উচ্চতা ছিলো ১৬১.৫ ...

                                               

টেউটন জাতি

টেউটন জাতি ছিল একটি প্রাচীন জার্মানীয় জাতি। এরা আদিতে কিম্ব্রির উপদ্বীপে বসবাস করত। বর্তমান উত্তর ডেনমার্কের টু জেলাটির নাম এদের নাম থেকে এসেছে। ১২০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ নাগাদ টেউটনেরা কিম্ব্রি জাতির লোকদের সাথে একত্রে দক্ষিণে যাত্রা শুরু করে। ১০৫ খ ...

                                               

গোর্খা

গোর্খা নেপাল ও উত্তর ভারতের একটি জাতিগোষ্ঠী। গোর্খা নামটির উৎপত্তি অষ্টম শতাব্দীর হিন্দু যোদ্ধা-সন্ত গুরু গোরক্ষনাথের নাম থেকে। তার শিষ্য বাপ্পা রাওয়াল রাজপুতানার মেবার রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা। বাপ্পা রাওয়ালের পরবর্তী উত্তরাধিকারগণ আরও পূর্বে চলে ...

                                               

তামাং

তামাং হল নেপালে বসবাসকারী একটি নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠী। ২০০১ সালের জনশুমারি অনুযায়ী নেপালের মোট জনসংখ্যার ৫.৬ শতাংশ ব্যক্তি তামাং জনগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত, সংখ্যার হিসেবে যা ১৩ লাখেরও বেশি। ২০১১ সালের জনশুমারি অনুসারে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫,৯৯,৮৩০ জনে। ...

                                               

ধিমাল

ধিমাল হিমালয়ের পাদদেশের তরাই অঞ্চলে বসবাসকারী একটি ক্ষুদ্র জন-গোষ্ঠী। ধিমাল জন-গোষ্ঠীর মানুষেরা প্রধানত নেপালের মোরাঙ্গ ও ঝাপা জেলা এবং পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিং জেলায় বসবাস করেন। সমাজ বিজ্ঞানীরা মনে করেন ধিমাল একটি হারিয়ে যাওয়া জন-গোষ্ঠী। উনিশ ...

                                               

নেওয়ার

নেওয়ার, আধুনিক নেপালী ভাষায়: नेवार Newār অথবা नेवाल Newāl) নেপাল উপত্যকার এক অতি প্রাচীন জাতি। এই মানব জাতির উত্‍স সম্পর্কে সঠিকভাবে কিছু বলা যায়না। আর্য, মোঙ্গল এবং দ্রাবিড় সব ধারার মানুষ মিলেমিশে নেপাল উপত্যকায় যে জনগোষ্ঠী তৈরি হয়েছিলো তা ...

                                               

রাই জনজাতি

রাই জনজাতি, পূর্ব নেপাল ও তরাই এর এক অতি প্রাচীন জাতি। এঁরা বিশাল কিরাত বা কিরান্তি জাতির একটি অংশ। অধ্যাপক, সুনীতি কুমার চ্যাটার্জী মনে করেন, এঁরা সুদূর তিব্বত, বার্মা, ও অসম হয়ে, নেপালে প্রবেশ করেছিলন। বর্তমানে, রাই জনজাতির মানুষেরা নেপাল ছাড় ...

                                               

লিম্বু

লিম্বু জনজাতি, বিশাল কিরাত বা কিরান্তি জাতির একটি অংশ। এঁরা একসময় হিমালয় পর্বতের সানুদেশে বাস করত। চারু চন্দ্র সান্যাল বলেছেন, এঁরা উচ্চ হিমালয় থেকে নেমে এসে বর্তমান নেপালের দহ্মিণ পূর্ব অংশে, সিকিমে, ভুটানে এবং দার্জিলিং জেলায় স্থায়ী বসবাস ...

                                               

কালাশ জনগোষ্ঠী

কালাশা বা কালাশ হচ্ছে একটি দার্দীয় আদিবাসী জনগোষ্ঠী যারা পাকিস্তানের খাইবার-পাখতুনখোয়া রাজ্যের চিত্রাল জেলায় বসবাস করে। তারা কালাশা ভাষায় কথা বলে যা ইন্দো-আর্য ভাষাগোষ্ঠীর দার্দীয় পরিবারের অন্তর্গত। এদেরকে পাকিস্তানের জনগণের মধ্যে অনন্য ধরা ...

                                               

তানোলি উপজাতি

Tanoli একটি উপজাতি যারা পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ার হাজরা অঞ্চলে বাস করে। তারা লাসান নবাব ইউনিয়ন পরিষদের সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠী। তনোলি উপজাতি নিজেদেরকে গজনি অঞ্চল থেকে আগত পশতুন বা বার্লাস তুর্ক হিসাবে বর্ণনা করে। তানোলি্রা ১৮৪০-এর দশকে সরাসর ...

                                               

পাকিস্তানে আরব জাতি

পাকিস্তানে আরব জাতি আরব বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বিশেষত মিশর, ওমান, ইরাক, কুয়েত, সিরিয়া, লিবিয়া, সৌদি আরব, ফিলিস্তিন, জর্ডান এবং ইয়েমেন থেকে আগতদের নিয়ে গঠিত এবং এর দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। আরব জাতি এবং আধুনিক পাকিস্তানের মধ্যে প্রথম যোগাযোগের সূচনাট ...

                                               

পাকিস্তানে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী

পাকিস্তানে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী পাকিস্তানের সিন্ধু, করাচিতে অবস্থিত একটি সম্প্রদায়। এরা হল, রোহিঙ্গা মুসলিম ও মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের আদিবাসী গোষ্ঠী, যারা বার্মিজ সরকার এবং বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠদের দ্বারা মুসলমানদের উপর নিপীড়নের কারণে দেশ ছেড়ে পা ...

                                               

বিহারি জাতি

বিহারি ভারতের বিহার রাজ্যের একটি জনগোষ্ঠী। এই জনগোষ্ঠীর ইতিহাস তিন হাজার বছরের প্রাচীন। বিহারিরা মাগধী, মৈথিলি, অঙ্গিকা, ভোজপুরি ইত্যাদি বিহারি ভাষা ও তার নানা উপভাষায় কথা বলেন। এছাড়া এই জনগোষ্ঠীর মধ্যে হিন্দি ও উর্দু ভাষাও যথেষ্ট প্রচলিত। এরা ...

                                               

অও (জনগোষ্ঠী)

অওগণ গড়ে প্রায় পাঁচ ফুআট ইঞ্চি দীর্ঘকায় হয় এবং এদের গায়ের রং তামাটে, কেশ কুঞ্চিত, দেহ যথেষ্ট লোমশ, নাক চ্যাপ্টা এবং মুখমন্ডল কিছুটা মঙ্গোলীয়দের মতো বিস্তৃত।

                                               

ওরাওঁ

ওরাওঁ, দক্ষিণ এশিয়ার একটি বড় উপজাতি। ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্য, ছত্রিশগঢ়, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশ্যা এবং পশ্চিমবঙ্গে এঁদের বাস। এছাড়া, ভারতের বাইরে বাংলাদেশেও এঁরা বাস করেন । ওরাঁও রা যে ভাষায় কথা বলেন, তার নাম কুরুখ ভাষা। তাদেরকে কুরুখ জাতিও বলা হয়। ...

                                               

কন্দ (জনগোষ্ঠী)

উনিশ শতকের মাঝামাঝি সময়ে বাংলাদেশে কন্দ জাতির বসবাস শুরু হয়। মূলত রেললাইন স্থাপন ও চা বাগানে কাজের জন্য উড়িষ্যা অঞ্চল বর্তমানে ভারতের ওড়িশা রাজ্য থেকে কন্দদের এ দেশে আনা হয়।

                                               

কান (উপজাতি)

কান, একটি ক্ষুদ্র মুসলিম সম্প্রদায়, তারা প্রধানত ছাতা মেরামতে জড়িত ছিল। ঐতিহ্য অনুসারে, কানরা মূলত ডোম সম্প্রদায়ের সদস্য ছিলেন যারা পরে ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন। ছাতা মেরামত করার পাশাপাশি, সম্প্রদায়টি মাছ ধরার বড়শি তৈরিতেও জড়িত। সম্প্রদায়টিকে ...

                                               

কুকি

কুকি জাতিগোষ্ঠী মিয়ানমার ও ভারতে থাডো নামে পরিচিত । এরা চীনা-তিব্বতী জাতিগোষ্ঠীর একটি ধারা যারা ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চল জুড়ে, মিয়ানমারের উত্তর-পশ্চিমাংশে এবং বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় বিস্তৃত। উত্তর-পূর্ব ভারতের কেবলমাত্র অরুণাচল প ...

                                               

কোচ জাতি

কোচ বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহারে বসবাসকারী অন্যতম প্রাচীন ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী। বর্তমানে কোচ জাতির বিস্তৃতি আদিভূমি কোচবিহার ছড়িয়ে ময়মনসিংহ জেলায় তাদের আবাস গড়ে তোলে । বর্তমানে শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী, নালিতাবাড়ী এবং শ্রীবর্দী উপজেলা ...

                                               

খাসিয়া

বাংলাদেশের সিলেট জেলা ও ভারতের আসামে এই জনগোষ্ঠী বাস করে। সিলেটের খাসিয়ারা সিনতেং গোত্রভুক্ত জাতি। তারা কৃষিজীবী। ভাত ও মাছ তাদের প্রধান খাদ্য। তারা মাতৃপ্রধান পরিবারে বসবাস করে। তাদের মধ্যে কাচা সুপারি ও পান খাওয়ার প্রচলন খুব বেশি। খাসিয়াদের ...

                                               

খিয়াং

খেয়াং বাংলাদেশের চট্টগ্রাম পার্বত্য অঞ্চলে বসবাসকারী একটি সম্প্রদায়। বাংলাদেশের অতিক্ষুদ্রতম আদিবাসী গোষ্ঠির অন্যতম এই খিয়াংয়ের জনসংখ্যা ২,৩৪৫ জন । তারা রাঙামাটি পার্বত্য জেলার কাপ্তাই ও চন্দ্রঘোনার কাছাকাছি কিছু গ্রামে বসবাস করে। কিছু খিয়াং ...

                                               

খুমি

১৭শ শতকের শেষভাগে খুমি উপজাতি আরাকান থেকে পার্বত্য চট্টগ্রামে আগমন করে। খুমীদের মুল জনগোষ্ঠীর বসবাস মায়ানমারে। গোষ্ঠীগত দাংগার কারণে খুমীদের একটি অংশ মায়ানামার হতে পালিয়ে এসে বান্দরবানের গহিন অরণ্যে বসবাস করতে শুরু করে। আবার অনেকের মতে খুমি আদ ...

                                               

গারো

গারো ভারতের মেঘালয় রাজ্যের গারো পাহাড় ও বাংলাদেশের বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলায় বসবাসকারী আদিবাসী সম্প্রদায়। ভারতে মেঘালয় ছাড়াও আসামের কামরূপ, গোয়ালপাড়া ও কারবি আংলং জেলায় এবং বাংলাদেশের ময়মনসিংহ ছাড়াও টাঙ্গাইল, সিলেট, শেরপুর, নেত্রকোণা, নে ...

                                               

চক (জাতিগোষ্ঠী)

চক বাংলাদেশের একটি উপজাতি। বাংলাদেশের বান্দরবান, চট্টগ্রামের চক পাহাড় ও মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে তাদের বসবাস রয়েছে। চকরা যে ভাষায় কথা বলে সেটি চাক ভাষা নামে পরিচিত। চকদের ভাষায় চক শব্দের অর্থ দাঁড়ানো। চকরা নিজেদের নামের শেষে চক লিখলেও আরাকা ...

                                               

চাকমা

চাকমা তথা চাঙমা বাংলাদেশের একটি জনজাতি। বাংলাদেশ সংবিধানের ২৩ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বলা হয় যে,বাংলাদেশে কোনো আদিবাসী নেই; বরং মূল বাঙালি জনগোষ্ঠীর বিপরীতে এই অ-বাঙালি জনসমষ্টিকে - উপজাতি; ক্ষুদ্র জাতিসত্তা; নৃগোষ্ঠী নামে অভিহিত করা হয়েছে। তবে, এই অ ...

                                               

জো জনগোষ্ঠী

জো জনগোষ্ঠী হলো ভারত, বাংলাদেশ এবং মায়ানমারের একটি নৃগোষ্ঠী। জো শব্দটি একটি জাতিগত গোষ্ঠী, যা মিজো, কুকি, পাইট, চীন এবং ভৌগলিক বিভক্তির উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন নামে পরিচিত। এটি ভারতের উত্তর-পূর্ব অঞ্চলে, উত্তর-পশ্চিম মিয়ানমার এবং বাংলাদেশের পার্ ...

                                               

তঞ্চঙ্গ্যা

তঞ্চঙ্গ্যা/তনচংগা/তনচংগ্যা/তংচংগ্যা অথবা তঞ্চংগ্যা পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসকারী একটি আদিবাসী জনগোষ্ঠী। আদিবাসী জনগোষ্ঠীর জনসংখ্যার দিক থেকে এদের স্থান ৫ম। ১৯৯১ সালের আদমশুমারি অনুসারে এদের জনসংখ্যা ২১,০৫৭ জন এবং পরিবার সংখ্যা ৪,০৪৩টি।

                                               

ত্রিপুরা জনগোষ্ঠী

ত্রিপুরা হল ভারত এবং বাংলাদেশের একটি সম্প্রদায়। ত্রিপুরা জাতির জনসংখ্যা প্রায় ২৫ লক্ষ। ত্রিপুরা সমাজব্যবস্থা পিতৃতান্ত্রিক।ছেলেরাই সম্পত্তির অধিকারী হয়৷ তারা মঙ্গোলীয় মহাজাতির অংশ। তারা কাপড় বয়নে বেশ দক্ষ।তারা নিজেদের পরনের কাপড় নিজেরাই তৈ ...

                                               

পাংখো

পাংখো বা পাংখোয়া হল বাংলাদেশ ও ভারতে বসবাসকারী ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠী। বাংলাদেশে চট্টগ্রামের পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটিতে এবং ভারতে মিজোরামে এরা বসবাস করে। আদমশুমারি ও গৃহগণনা-১৯৯১ অনুসারে বাংলাদেশে পাংখো জনগোষ্ঠীর সংখ্যা ৩,২২৭ জন। আদমশুমারি ও গৃহগণনা-১ ...

                                               

পাত্র জাতি

পাত্র জনগোষ্ঠীর ভাষার নাম লালেং থার। এ ভাষার কোন বর্ণমালা নেই। এ ভাষার সাথে বাংলা বা অন্য কোন ভাষার কোন মিল নেই। এ ভাষা নিয়ে এখনো উল্লেখ করার মতো কোন গবেষণা হয়নি।

                                               

বংশী (উপজাতি)

বংশী বাংলাদেশের একটি ক্ষুদ্রতম উপজাতি। এরা টাঙ্গাইল জেলার মহানান্দপুর এবং দন্দোনিয়া নামে পাশাপাশি দুইটি গ্রামের বসবাস করে। তারা নিজেদেরকে সূর্য-বংশী বলে থাকে।

                                               

বম

বম পার্বত্য চট্টগ্রামের একটি ক্ষুদ্র জাতিসত্তার নাম। বম জাতি মঙ্গোলীয় জনগোষ্ঠীর লোক। ‘বম’ শব্দের অর্থ হলো বন্ধন । জীবনের যাবতীয় কর্ম, শিকার পর্ব, নৃত্যগীত, পানাহার, দেবতার উদ্দেশে যজ্ঞ নিবেদন সবকিছুই একত্র হয়ে সম্মিলিতভাবে সম্পাদন করার রীতি থে ...